ওর ঠোঁট এত সুন্দর !

সুন্দর ঠোঁট কে না চায়! তবে শুধু চাইলেই হবে না। তার জন্য একটু সচেতন তো হতেই হবে। অনেকেরই আবার জন্মগতভাবেই ঠোঁট সুন্দর। তাদের কথা আলাদা। তারপরও তারা যদি ঠোঁটের যত্ন না নেন, তাহলে সে সৌন্দর্য দীর্ঘদিন থাকবে না।

অন্যের সুন্দর ঠোঁট দেখে অনেকেই আফসোস করেন। হীনমন্যতায় ভোগেন। অন্যের সুন্দর ঠোঁট দেখে অনেকের মুখ হা হয়ে যায়, অনেকেই উচ্ছ্বাস দমিয়ে রাখতে না পেরে বলেই ফেলেন, ওর ঠোঁট এত সুন্দর!
ঠোঁট সুন্দর না হলে আপনার হাসি সুন্দর হবে না। সুন্দর হাসির জন্য তাই ঠোঁটের যত্ন নেয়া জরুরি।

সুন্দর ঠোঁটের জন্য মেয়েদের ঠোঁট চর্চার অন্ত নেই। কেউ সচেতনভাবে এই চর্চা করে থাকেন, আবার কেউ কোনো কিছু না জেনেই ঠোঁটচর্চা করে থাকেন। অসচেতনভাবে ঠোঁটচর্চা করলে হিতে বিপরীত হতে পারে। তাই চর্চা যখন করবেন তখন জেনেশুনেই করা ভালো।

ঠোঁট সুন্দর করার জন্য আপনি কৃত্রিমভাবে যত ধরণের কলা কৌশলই করুর না কেন, এক সময় সেসব আর কোনো কাজে আসবে না। তাই ঠোঁটচর্চা প্রাকৃতিক উপায়ে করাই ভালো। এতে সৌন্দর্য হবে দীর্ঘস্থায়ী।

ঠোঁট সুন্দর করার কিছু টিপস-

১. একটি পাতলা লেবুর টুকরোর ওপরে খানিকটা চিনি ছিটিয়ে প্রতিদিন ঠোঁটে আলতো করে ঘষুন।
২. মধুর সাথে চিনি এবং কয়েক ফোঁটা অলিভ অয়েল মিশিয়ে ১০ মিনিট ঠোঁটে ঘষুন।
৩. লেবুর রস চিনি ও মধু একসঙ্গে পেস্ট করে ঠোঁটে প্রলেপ দিন। ১০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন।
৪. লেবুর রসের সঙ্গে গ্লিসারিন মিশিয়ে ঠোঁটে লাগালেও উজ্জ্বলতা বাড়বে।
৫. টমেটো পেস্ট করে ঠোঁটে মাখুন প্রতিদিন।
৬. প্রতিদিন শশার একটি টুকটা ৫ মিনিট ঠোঁটে ঘষুন। 

সচেতনতা

১. রাতে ঘুমানোর আগে অবশ্যই লিপস্টিক তুলে ফেলবেন।
২. জিহ্বা দিয়ে ঠোঁট ভেজাবেন না।
৩. ফাস্ট ফুড খাওয়া কমান, সবজি বাড়ান।
৪. অতিরিক্ত গরম চা পান থেকে বিরত থাকুন।

0 comments:

Post a Comment

" কিছু স্বপ্ন আকাশের দূর নীলিমাক ছুয়ে যায়, কিছু স্বপ্ন অজানা দূরদিগন্তে হারায়, কিছু স্বপ্ন সাগরের উত্তাল ঢেউ-এ ভেসে যায়, আর কিছু স্বপ্ন বুকের ঘহিনে কেদে বেড়ায়, তবুও কি স্বপ্ন দেখা থেমে যায় ? " সবার স্বপ্নগুলো সত্যি হোক এই শুভো প্রার্থনা!

Follow me