পরকীয়া

প্রায় প্রতিটি দেশেই বিবাহবহির্ভূত সম্পর্ক বা পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন নারী বা পুরুষ গোটা বিশ্বে দিন দিন বৃদ্ধিই পাচ্ছে এর সংখ্যা তবে পরকীয়া বেড়ে যাওয়ার কারণ হিসেবে দায়ী করা হচ্ছে অনলাইন সাইটগুলোকে বা বলা ভালো ডেটিং সাইটগুলোকে! অবশ্য এসব সাইটগুলো বেশ ঘটা করেই নিজেদেরকে 'চিটিং' সাইট বলে থাকে

এই সাইটের মূল লক্ষ্যই হচ্ছে মানুষকে পরকীয়া করার সঙ্গী খুঁজে দেয়া একটা নির্দিষ্ট অংকের টাকার বিনিময়ে আপনি তাদের সদস্য হতে পারবেন আর তারপর এই ডেটিং সাইট থেকে খুঁজে নিতে পারবেন মনের মত পরকীয়ার সঙ্গী 

আসলে অ্যাশলে ম্যাডিসন ডটকমের স্লোগানই সঠিক - 'জীবন ছোট, একটি প্রেম করুন' ! আমার ধারণা "অন্তত একটি প্রেম না করলেই হয়না ! "

এ ধরনের ওয়েবসাইটের সাহায্যে অনেক নারী তার অবিশ্বস্ত স্বামীর প্রতি প্রতিশোধ নিতে পেরেছেন ছেলে বন্ধু খুঁজে নিতে পেরেছে ! একটি সফল ওয়েব সাইটের নির্মাতা নোয়েল বাইডারম্যান বলেন, "কেউ আমাকে এমন কোনো সমাজ দেখাতে পারবে না, যেখানে বিশ্বাসভঙ্গের ঘটনা ঘটে না " তাহলে আমরা সবাই যখন এটা  চাই, তাহলে এটা দোষের কিছু বলে আমার মনে হয়না ! তাই এটার জন্য একটা নির্দিস্ট খোঁজার মাধ্যম থাকা অবস্যই ভালো !

এ বিষয়ে ইউনিভার্সিটি অফ ওয়াশিংটনের সমাজবিজ্ঞানের প্রফেসর পিপার স্কুয়ার্জ বলেন, "আমার ধারণা, কিছু মানুষ তাদের সম্পর্কের বাইরে যৌনতা কামনা করে কিন্তু কীভাবে তা করবে, সে সম্পর্কে কোনো ধারণা করতে পারে না তাদেরকে কেবল রাস্তা দেখিয়ে দিচ্ছে এসব সাইট

পিপার স্কুয়ার্জ এর সাথে আমিও একমত , আমার ধারণা সমাজের ১০০ জন বিবাহিত পুরুষের মধ্যে ৯৯ জনই মনে মনে কামনা করে যে, তাদের বর্তমান পুরানো বৌ'কে বাদ দিয়ে একটা ১৬ বছরের অবিবাহিত মেয়েদের সঙ্গ পেতে চায়, হয়ত সমাজের ভয়ে, লজ্জায়, আবার কারো কারো টাকা নেই বলে মুখ খুলতে পারছেনা ! আমার মতো এসব লোকদের জন্য এই সাইটগুলো কাজে দেয় ! 

কিন্তু আমি এই সাইটগুলো দিয়ে কোনো কাজ করতে পারলামনা ! ভুয়া কিছু সাইটের মাঝে সত্যিকার সাইটগুলোর প্রতি  মানুষের  আস্থা হারিয়ে যায় !

0 comments:

Post a Comment

" কিছু স্বপ্ন আকাশের দূর নীলিমাক ছুয়ে যায়, কিছু স্বপ্ন অজানা দূরদিগন্তে হারায়, কিছু স্বপ্ন সাগরের উত্তাল ঢেউ-এ ভেসে যায়, আর কিছু স্বপ্ন বুকের ঘহিনে কেদে বেড়ায়, তবুও কি স্বপ্ন দেখা থেমে যায় ? " সবার স্বপ্নগুলো সত্যি হোক এই শুভো প্রার্থনা!

Follow me