মেয়েদের সঙ্গে সাক্ষাতের ১০ মিনিটের মধ্যেই যে ১০ ব্যাপার খেয়াল করে ছেলেরা




১. হাসি

হাসির ধরন দেখেই আপনার সম্পর্কে অনেক কিছুই বলা যায়। সুতরাং একবার ভাবুন, প্রথমবারের মতো আপনি ছেলেটির সঙ্গে সাক্ষাৎ করছেন কি না। যদি তাই হয়, তবে এমন ভাব করবেন না- যাতে মনে হয় আপনি তাকে সন্তুষ্ট করতে খুবই উৎসাহী। কিংবা অবোধ শিশুর মতো উৎসাহব্যাঞ্জক হাসি হাসবেন না। আবার মুখটি একেবারে হাঁড়ির তলার মতো রাখাও ঠিক নয়।


২. পোশাক-পরিচ্ছদ

মুখাবয়ব ছাড়াও আপনি কি পোশাক পরেছেন তা অনেক সময় প্রথম দৃষ্টি কাড়ে ছেলেদের। আপনি কি গেছো মেয়ে, না কি কোন বালিকাসুলভ মেয়ে- এসবই প্রকাশ পেতে পারে আপনার পরিধেয় পোশাকে। শুধু এটা দেখেই কোন ছেলে মনস্থির করতে পারে, সে আপনার দিকে এগোবে না কি পেছাবে।


৩. আপনি কী খাচ্ছেন

আপনি কী খাচ্ছেন, কীভাবে খাচ্ছেন তা থেকে ছেলেটি আপনার সম্পর্কে ধারণা পেতে পারে। অনেক রহস্যমোচনে ভূমিকা রাখে খাবার ও পানীয়। পানীয় দেখেও ধারণা মিলতে পারে আপনি সাহসী নাকি রক্ষণশীল।


৪. আপনার কথার ধরন

যে সব ব্যাপারে আপনার একেবারেই আগ্রহ নেই নেই সেসব বিষয়ে কপটতাপূর্ণ আগ্রহ প্রকাশ করার চেষ্টা করবেন না। ছেলেটি যদি ফুটবল নিয়ে কথা বলে আর আপনার যদি এতে অংশ নেওয়ার মতো কোন সূত্র না থাকে তবে নীরব থাকুন। এমন ভাব করবেন না আপনি এ বিষয়ে খুবই উৎসাহী। নইলে ছেলেটি আপনাকে ফাঁপা মনে করতে পারে।


৫. আপনার কেশবিন্যাস

আপনি কি চুলের খোঁপা নিয়ে সাদাসিধে থাকতে চান? যদি উত্তর হ্যাঁ হয়, তবে এমন কৌতুককর হেয়ার স্টাইল ছাড়ুন যাতে আপনাকে দেখে দৌড়বিদ বলে মনে হয়। চুল কিছুটা অগোছালো থাকলো- সেও ভালো, কিন্তু পুরোদস্তুর এলোমেলো যেন না থাকে।


৬. আপনার বক্ষদেশ

মুখে স্বীকার না করলেও ছেলেরা এ কাজটি সন্তর্পণে সেরে নেয়। এই সত্যটি জেনে রেখে আপনাকেই ঠিক করতে হবে, কিভাবে নিজেকে উপস্থাপন করবেন। একেবারে গলা পর্যন্ত বোতাম আঁটা জামা পরে থাকলে বেশি রক্ষণশীল মনে হতে পারে। আবার একেবারে খোলামেলা ডিপ নেকের পোশাক পরলে তা বাড়াবাড়ি বা স্বাভাবিকের চেয়ে অন্যরকম মনে হতে পারে। সুতরাং সিদ্ধান্তটি আপনার।


৭. আপনার ব্যাগের ভিতর কি আছে

যদি আপনার ব্যাগটি হয় একটি ঝোলাবিশেষ তবে তা হয়তো একটু দৃষ্টিকটু। হতে পারে আপনি অতিমাত্রায় রক্ষনশীল নন, কিন্তু যদি অহেতুক বাড়তি জিনিস আপনার ঝোলায় মজুদ করে রাখেন তবে তা বাজে দেখাতেও পারে। সুতরাং ব্যাগটি হতে হবে স্মার্ট ও আধুনিক।


৮. পোশাক আর মেক-আপে যত্ন

এমন মেক-আপ করবেন না যাতে আপনাকে কোন কফি হাউজের পুতুল মনে হয়। আবার আপনি এমন অবস্থায় পার্টিতে হাজির হয়েছেন যে দেখে মনে হয় আপনি মুখ ধোয়ার সময়টুকুও পাননি, সেটিও ঠিক নয়। বরং আপনার এমনভাবে হাজির হওয়া উচিৎ যাতে কোন ছেলের কাছে ঠিক আবেদনময়ী নয় তবে আকর্ষণীয় মনে হয়।


৯. পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা

বলছি আপনার স্কিন সম্পর্কে। আপনার মুখে কোনো গাঢ় প্রলেপ কিংবা অপরিচ্ছন্ন মুখাবয়ব- কোনটাই দেখতে চায় না ছেলেরা। সুতরাং প্রসাধনী না থাকুক- মুখটি যেন থাকে পরিষ্কার, ঝকঝকে।


১০. চলাফেরা

আপনার হাঁটা, বসা, দাঁড়ানো- সবকিছুই অনেক কিছুই বলতে পারে আপনার সম্পর্কে। আসনে বসে স্নায়বিক অস্থিরতায় ভুগলে তা স্পষ্টই আপনার বিশেষ দুর্বলতার দিককেই উন্মোচিত করে। কিংবা দূরে সটান হয়ে বসে থাকলেও মনে হতে পারে আপনি আসলে বিব্রত। সুতরাং থাকুন স্বাভাবিক ও আয়েসি ভঙ্গীমায়।

0 comments:

Post a Comment

" কিছু স্বপ্ন আকাশের দূর নীলিমাক ছুয়ে যায়, কিছু স্বপ্ন অজানা দূরদিগন্তে হারায়, কিছু স্বপ্ন সাগরের উত্তাল ঢেউ-এ ভেসে যায়, আর কিছু স্বপ্ন বুকের ঘহিনে কেদে বেড়ায়, তবুও কি স্বপ্ন দেখা থেমে যায় ? " সবার স্বপ্নগুলো সত্যি হোক এই শুভো প্রার্থনা!

Follow me