যে ৫ প্রকার কথা চিরতরে নষ্ট করে দিতে পারে বন্ধুত্বের সম্পর্ক!

 

লাইফস্টাইল ডেস্ক : পৃথিবীর সব মানুষেরই তো বন্ধু আছে। পরিবারের পর বন্ধুই যেন সবচেয়ে আপনজন। যারা পরিবার থেকে দূরে থাকেন তাদের জন্য বন্ধুরাই পরিবারের মত। বন্ধুদের সাথে তো বেশ আনন্দেই কাটে আপনার সময়গুলো। কিন্তু অনেক সময়েই ছোট্ট একটা কথায় কিংবা ভুলের কারণে বন্ধুত্বের এতো সুন্দর সম্পর্কটায় চির ধরে যায়। হয়তো না বুঝেই বলা একটা কথায় আপনার প্রিয় বন্ধুটির সাথে অনেক দূরত্ব তৈরী হয়ে যায় আপনার। তাই বলে বন্ধুদের সাথে কি আর এতো মেপে মেপে কথা বলা যায়? নাহ, তার প্রয়োজন নেই। কিন্তু কিছু কথা আছে যেগুলো এড়িয়ে গেলেই বন্ধুত্বের সম্পর্ক সুন্দর থাকে। আসুন দেখে নেয়া যাক বন্ধুদের সাথে কোন কথা গুলো এড়িয়ে যাওয়া উচিত।

তোমার সঙ্গীটি খুবই বিরক্তিকর

আপনার সবচেয়ে কাছের বন্ধুটির প্রেমিক কিংবা প্রেমিকাটিকে আপনার ভালো নাও লাগতে পারে। কিন্তু তাই বলে মুখের উপর তার সম্পর্কে কোনো বদনাম করলে আপনার বন্ধুটি মনে কষ্ট পাবেন এবং আপনার সাথে তার দূরত্ব বেড়ে যাবে। আপনার বন্ধুর সঙ্গীকে হয়তো আপনার পছন্দ হচ্ছে না কিংবা বিরক্তিকর লাগছে। কিন্তু আপনার বন্ধু হয়তো তাঁকে খুবই ভালোবাসে। এই ক্ষেত্রে বন্ধুর সঙ্গীটি যতই খারাপ হোক কিংবা বিরক্তিকর হোক না কেন সরাসরি কিছু বলা উচিত নয়। তবে যদি আপনার কাছে বন্ধুর সঙ্গীর কোনো বিষয় আপনার বন্ধুর জন্য ক্ষতিকারক মনে হয়, সেটা তাঁকে বুঝিয়ে বলতে পারেন। তবে এক্ষেত্রে কৌশল অবলম্বন করে সরাসরি না বলে ইশারায় বুঝাতে পারলে সম্পর্ক খারাপ হওয়ার আশঙ্কা থাকবে না।

এখন প্রতিষ্ঠিত হও

আপনার বন্ধুটি যদি ঠিক করে থাকে যে সে সারাজীবন কাগজ খেয়েই কাটিয়ে দিবে কিংবা এটা ঠিক করে যে সে গরু চরিয়ে দিন পার করবে তাহলেও তাঁকে প্রতিষ্ঠিত হতে বলবেন না। কারণ মানুষ বন্ধুদের মুখ থেকে নিজের পায়ে দাঁড়ানোর কথা শুনতে চায় না। এসব কথা বলার জন্য পরিবারই যথেষ্ট। সমবয়সী বন্ধুর মুখে এসব কথা শুনতে যে কেউ খুবই অস্বস্তি বোধ করে এবং বন্ধুর সাথে ধীরে ধীরে দূরত্ব বাড়িয়ে দেয়। তাই এ ধরণের কথা এড়িয়ে যাওয়াটাই বুদ্ধিমানের কাজ।

তোর ওজন বেড়েছে/চুল পড়ে গিয়েছে ইত্যাদি

আপনার বন্ধুটি যদি হঠাৎ করে মোটা হয়ে যায় তাহলে তাঁকে খুব গম্ভীরভাবে ‘তোর ওজন বেড়ে গিয়েছে’ এভাবে না বলে বলতে পারেন ‘ব্যায়াম কর, হাতি কোথাকার’! বন্ধুর সাথে হাসি ঠাট্টার মাধ্যমে একটা কথা বলা আর গম্ভীর ভাবে বলার মধ্যে অনেক পার্থক্য আছে।

এতো ছোট কারণে ব্রেকআপ করলে!

সম্পর্ক ভাঙ্গা গড়া পুরোপুরিই আপনার বন্ধুর ব্যক্তিগত ব্যাপার। সম্পর্ক ভাঙ্গা গড়ার ব্যাপারে অন্য কারো নাক না গলানোই ভালো। কারণ আপনার বন্ধুটি নিশ্চয়ই জেনে বুঝেই সম্পর্ক ভেঙ্গেছে। নিজের ভালোর জন্যই হয়তো সে সরে এসেছে একটা সম্পর্ক থেকে। তাই তার ব্যাপারটা তাকেই বুঝতে দিন। তার ব্যক্তিগত ব্যাপারে আপনি নাক গলালে শুধু শুধু বন্ধুত্বটাই নষ্ট হবে।

আমি এটার টাকা দিয়েছি/ তোমার এটার টাকা দিয়ে দেয়া উচিত

বন্ধুর জন্য ছোট খাটো কিছু কিনলে বা এক সঙ্গে খেতে গিয়ে বিল দিতে গেলে টাকা পয়সার হিসাব করা উচিত না। সামর্থ্য থাকলে বন্ধুর জন্য খরচ করুন। ছোট খাটো জিনিসের দাম বন্ধুর কাছ থেকে নিতে যাবেন না কিংবা বারবার শোনাবেন না যে এটা আপনি দাম দিয়ে কিনেছেন তার জন্য। বন্ধুত্বের মাঝে কৃপণতা কিংবা টাকার হিসাব আনলে সেই বন্ধুত্বে দূরত্ব সৃষ্টি হয়।

0 comments:

Post a Comment

" কিছু স্বপ্ন আকাশের দূর নীলিমাক ছুয়ে যায়, কিছু স্বপ্ন অজানা দূরদিগন্তে হারায়, কিছু স্বপ্ন সাগরের উত্তাল ঢেউ-এ ভেসে যায়, আর কিছু স্বপ্ন বুকের ঘহিনে কেদে বেড়ায়, তবুও কি স্বপ্ন দেখা থেমে যায় ? " সবার স্বপ্নগুলো সত্যি হোক এই শুভো প্রার্থনা!

Follow me