হাত তালি দেয়ার ৮ রকম স্বাস্থ্য উপকারিতা!

 

স্বাস্থ্য ডেস্ক : শিরোনাম পড়েই নিশ্চয়ই চোখ কপালে উঠে গেছে? ভাবছেন হাত তালির আবার স্বাস্থ্য উপকারিতা আছে নাকি! শুনতে হাস্যকর লাগলেও সত্যি যে হাত তালিরও আছে অনেক স্বাস্থ্য উপকারিতা। এমনকি দুই হাতের তালু দিয়ে সৃষ্ট শব্দগুলো ভোর বেলা গান শোনার চাইতেও বেশি আনন্দ দিতে সক্ষম। মানুষের শরীরের বিভিন্ন স্থানে বেশ কিছু আকুপ্রেশার পয়েন্ট আছে। তার মধ্যে হাতের তালুতেই আছে অনেক গুলো। তাই হাত তালি দিলে যখন হাতের তালুতে চাপ লাগে তখন পুরো শরীরের বিভিন্ন যায়গায় এর ইতিবাচক প্রভাব পড়ে।

আমরা সাধারণত কাউকে উৎসাহ দিতে হাত তালি দিয়ে থাকি। আবার অনেক সময় মনের আনন্দ প্রকাশ করে থাকি হাত তালি দিয়ে। অনেক মানুষ আবার গান গাওয়ার সময় কিংবা গান শুনার সময় গানের তালে তালে হাত তালি বাজিয়ে থাকে। শিশুরাও খুশিতে হাত তালি দেয়। হাত তালি দেয়াটা এক ধরণের বিনোদন যা মনে আনন্দের উদ্রেক করে। আসুন জেনে নেয়া যাক হাত তালি দেয়ার স্বাস্থ্য উপকারিতা গুলো।
হাত তালি দেয়ার স্বাস্থ্য উপকারিতা

নিয়মিত হাত তালি দিলে হৃৎপিণ্ডের বিভিন্ন অসুখের ঝুঁকি কমে।
হাত তালি দেয়ার অভ্যাস থাকলে হাঁপানির প্রকোপ কমে।
হাত তালি দিলে নার্ভের কার্যক্ষমতা বাড়ে। বিশেষ করে যেসব নার্ভ হৃৎপিণ্ড ও ফুসফুসের সাথে সম্পর্কিত সেসব নার্ভের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।
হাত তালি দিলে মন প্রশান্ত হয় এবং মানসিক চাপ কমে।
হাত তালি দিলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে কারণ এটা শ্বেত রক্ত কণিকা বাড়ায়। ফলে বিভিন্ন রোগ-বালাই থেকে শরীর রক্ষা পায়।
হাত তালি দিলে রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি পায় এবং রক্ত নালী ও ধমনীর সকল প্রতিবন্ধকতা দূর হয়। ফলে রক্তের খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রাও কমে।
প্রতিদিন খাওয়ার কিছুক্ষন পর ১ ঘন্টা হাত তালি দিয়ে হাত ও পা দুটোই ঘামিয়ে যাবে এবং বেশ অনেকটা ক্যালোরি পুড়বে।
হাত তালি দিলে হাইপার টেনশন, ডায়াবেটিস, বিষণ্ণতা, হাপানি, ঠান্ডা লাগা, মাথা ব্যাথা, ইনসমনিয়া ও চুল পড়ে যাওয়া ইত্যাদি সমস্যার সমাধানে সহায়তা হয়।

প্রতিদিন কতক্ষণ হাত তালি দিতে হবে?

প্রতিদিন ১৫০০ বার হাত তালি দিলে শরীর পুরোপুরি সুস্থ থাকে। ১০০০ বার হাত তালি দিতে মাত্র ৮ থেকে ১০ মিনিট সময় লাগে। তবে প্রথম দিনই ১৫০০ বার হাত তালি না দিয়ে ১৫০/২০০ বার হাত তালি দিন। এরপর ধীরে ধীরে এর পরিমাণ বাড়িয়ে ১৫০০ বার হাত তালি দেয়ার অভ্যাস করুন। হাত তালি দেয়ার সময় হাতের তালুতে একটু নারিকেল তেল বা সরিষার তেল মেখে নিতে পারেন।

নিয়মিত ৮/১০ মিনিট হাত তালি দেয়ার অভ্যাস করলে মাত্র ২ মাসের মধ্যেই আপনার শারীরিক পরিবর্তন আপনি বুঝতে পারবেন। আগে থেকে অনেক বেশি শক্তি পাবেন এবং নিজেকে বেশ ঝরঝরে লাগবে। হাত তালি দিয়ে আরো বেশি স্বাস্থ্য উপকার পেতে চাইলে পুরো ঘরে হেঁটে হেঁটে হাত তালি দিন। তাহলে পুরো শরীরের ব্যায়ামও হবে একই সঙ্গে।

0 comments:

Post a Comment

" কিছু স্বপ্ন আকাশের দূর নীলিমাক ছুয়ে যায়, কিছু স্বপ্ন অজানা দূরদিগন্তে হারায়, কিছু স্বপ্ন সাগরের উত্তাল ঢেউ-এ ভেসে যায়, আর কিছু স্বপ্ন বুকের ঘহিনে কেদে বেড়ায়, তবুও কি স্বপ্ন দেখা থেমে যায় ? " সবার স্বপ্নগুলো সত্যি হোক এই শুভো প্রার্থনা!

Follow me