কিভাবে বন্ধুত্ব অটুট রাখবেন


বন্ধু যখন বড় কোনো ধরনের অসুখে পড়বে চেষ্টা করবেন তার পাশে থাকতে। কারণ এ সময়টায় অনেক একা হয়ে পড়েন তিনি। যদি কিছুটা সুস্থ বোধ করেন, তখন তাকে নিয়ে কাছে কোথাও ঘুরতে যাওয়া কিংবা কোনো রেস্টুরেন্ট থেকে খেয়ে আসতে পারেন। প্রিয় গান, নাটক, সিনেমা দেখানোর ব্যবস্থাও করতে পারেন।


সময় বুঝে কথা বলবেন বন্ধুর সঙ্গে। যখন সে কোনো সমস্যার মধ্য দিয়ে দিন পার করছে, তখন কথা বলতে সাবধানী হওয়া উচিত। সাহস দিন বন্ধুকে। আশ্বস্ত করুন শিগগিরই তিনি সংকট কাটিয়ে উঠবেন। এমন কিছু বলবেন না, যাতে বন্ধুর ‘কাটা ঘায়ের’ যন্ত্রণা আরো বেড়ে যায়।


যখন-তখন বলে বসবেন না ‘আমি তোমার সমস্যা বুঝতে পারছি’। হয়তো বুঝতে পারছেন না। সান্ত্বনা দিতে বলার জন্য বললেন। এটা না করে বন্ধু কী ধরনের সমস্যা মোকাবেলা করছে, তা জানার চেষ্টা করুন। তাই বন্ধুর সংকটাপন্ন সময়ে শুধু আবেগী কথা না বলে সত্যিকার অর্থেই বন্ধুকে বোঝার চেষ্টা করুন।


অনেক সময় বন্ধু প্রেম-সম্পর্কিত কোনো সমস্যায় ভুগতে পারেন। হয়তো তিনি সম্পর্কের এখানেই ইতি টানতে চান। কিন্তু সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারছেন না। খুবই অস্থির সময় পার করছেন। কিছুই ভালো লাগছে না। আত্মহত্যার প্রবণতাও এ সময়ে আচ্ছন্ন করতে পারে তাকে। একজন ভালো বন্ধু হিসেবে তখন দায়িত্ব হবে খোলামেলা আলোচনা করা। তাকে উত্সাহ দেয়া, অভয় দেয়া; যাতে সে নির্দ্বিধায় বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে পারে, নিজের সিদ্ধান্তের বিষয়ে আত্মবিশ্বাস অর্জন করতে পারে।


অর্থসংকট সবসময়ই বড় সমস্যা। এ সমস্যায় পড়লে সহজে সবাইকে তা বলাও যায় না। যদি বুঝতে পারেন বন্ধুর কাছে টাকা নেই, তা হলে টাকা খরচের জন্য তাকে চাপ না দেয়াই ভালো।

0 comments:

Post a Comment

" কিছু স্বপ্ন আকাশের দূর নীলিমাক ছুয়ে যায়, কিছু স্বপ্ন অজানা দূরদিগন্তে হারায়, কিছু স্বপ্ন সাগরের উত্তাল ঢেউ-এ ভেসে যায়, আর কিছু স্বপ্ন বুকের ঘহিনে কেদে বেড়ায়, তবুও কি স্বপ্ন দেখা থেমে যায় ? " সবার স্বপ্নগুলো সত্যি হোক এই শুভো প্রার্থনা!

Follow me