ভালোবাসার নারীর চোখে হয়ে উঠুন রোমান্টিক পুরুষ!


আপনি একজন ব্যক্তিত্ববান কর্মব্যস্ত পুরুষ। সারাদিন এই কাজ ওই কাজের ব্যস্ততায় রোমান্টিকতা অনেকটাই যেন হারিয়ে গেছে আপনার ব্যক্তিসত্ত্বা থেকে। এই নিয়ে হয়তো অভিযোগও শুনতে হয় প্রতিদিন আপনার স্ত্রী কিংবা প্রেমিকার কাছ থেকে। মনটা তখন খারাপ হয় না? নিশ্চয়ই হয়। মনে হয় ব্যস্ততার চাপে বুঝি হারিয়ে যাচ্ছে সম্পর্কের মাধুর্য, কিংবা হয়তো মনে হয় বদলে যাচ্ছেন আপনি নিজেই।
কিন্তু আপনি কি জানেন, অনেক সহজেই আপনার ভালোবাসার মানুষটির কাছে আপনি হতে পারেন একজন আদর্শ রোমান্টিক পুরুষ। তবে জেনে নিন কি কি করলে আপনি আপনার স্ত্রী বা প্রেমিকার মন জয় করতে পারবেন খুব সহজেই।
  • ১)শত ব্যস্ততার মাঝেও বিশেষ দিনগুলো মনে রাখুন। জন্মদিন,বিবাহ বার্ষিকী এবং অন্যান্য সব বিশেষ দিনগুলো মনে রাখার চেষ্টা করুন। যদি মনে রাখতে না পারেন, তাহলে আপনার বন্ধু হিসাবে কাজ করবে আপনার সেল ফোন এর রিমাইন্ডার। বিশেষ দিন গুলো আগে থেকেই রিমাইন্ডার দিয়ে রাখুন। আপনার ভালোবাসার মানুষটিকে নিয়ে ঘুরে আসুন বাইরে থেকে। আপনার সামর্থ অনুযায়ী উপহার দিন। অন্তত একটি লাল গোলাপ হলেও দিন। রাতে ডিনারটা বাইরে সেরে আসতে পারেন।
  • ২) ভালো শ্রোতা হতে চেষ্টা করুন। মেয়েরা সব সময়ই চায় তার স্বামী তার কথা মন দিয়ে শুনুক। তাই আপনার স্ত্রী বা প্রেমিকা কি বলতে চায় তা মন দিয়ে শুনুন। তাকে উপলব্ধি করতে দিন যে আপনি তার কথা মন দিয়ে শুনছেন ও গুরুত্ব দিচ্ছেন। তার ছোট ছোট ইচ্ছাগুলো পারলে নোট করে ফেলুন। তার ইচ্ছাগুলো পূরণ করে সময়মত তাকে চমকে দিন। দেখবেন বিনিময়ে একি কাজ তিনি করছেন আপনার জন্যও।
  • ৩) ‘ভালোবাসি’ এই ছোট্ট কথাটি বলতে কার্পন্য করবেন না কখনোই। প্রতিটি মানুষই চায় তার প্রিয় মানুষটি তার কাছে ভালোবাসা প্রকাশ করুক। তার কি কি স্বভাব আপনাকে আকর্ষণ করে সেটাও বলে ফেলুন একান্ত মুহূর্তে।
  • ৪) শুধুমাত্র বিশেষ দিন গুলোতেই রোমান্টিক ডেট করতে হবে এমন কোনো কথা নেই। আপনি মাঝে মাঝেই আপনার প্রিয় মানুষটিকে নিয়ে নতুন কোন সিনেমা দেখে আসুন, পিকনিকে যেতে পারেন অথবা ঘুরে আসুন কোন রেস্টুরেন্ট থেকে। অফিস থেকে একটু আগে এসে সারপ্রাইজ দিতে পারেন। অথবা দুইদিন এর ছুটি নিয়ে ঘুরে আসতে পারেন সমুদ্র পাড় থেকে।
  • ৫) নিশ্চয়ই পছন্দের নারীর অনেক কিছুই আপনার ভালো লাগে? ভালো লাগে বলেই তো ভালোবাসেন, তাই না? দিনে অন্তত একবার এই ভালো লাগার ব্যাপারটি প্রকাশ করুন। প্রিয়তমার যে ব্যাপারে আপনি খুশি হয়েছেন, সেটি তাঁকে জানান। আপনার প্রশংসা তার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে দিবে অনেকখানি। আপনার প্রতি সে আরও মনযোগী হবে ও উৎসাহ পাবে। আপনাদের সম্পর্ক হয়ে উঠবে আরও মজবুত।
  • ৬) নিজেকে আকর্ষণীয় ভাবে উপস্থাপন করুন। মেয়েরা স্মার্ট ও পরিস্কার পরিচ্ছন্ন ছেলেদের পছন্দ করে। নিজেকে টিপ-টপ রাখুন। পরিস্কার ও রুচিশীল পোষাক পরুন। সুগন্ধী ব্যবহার করুন। হাসিখুশি থাকার চেষ্টা করুন।
  • ৭) আপনার প্রিয় মানুষটিকে খুশি করতে অনেক অর্থের প্রয়োজন নেই। ভালোবাসা মিশ্রিত ছোট্ট কোন উপহার অথবা একটি মিষ্টি হাসির মধ্যেই অনেক রোমান্টিকতা আছে। তাই ভালোবাসা প্রকাশে কার্পন্য করে নিজের জীবনের সুন্দর মূহুর্তগুলোকে হারিয়ে যেতে দিবেন না।
তাই হাসুন, ভালোবাসুন ও সুখে থাকুন।

0 comments:

Post a Comment

" কিছু স্বপ্ন আকাশের দূর নীলিমাক ছুয়ে যায়, কিছু স্বপ্ন অজানা দূরদিগন্তে হারায়, কিছু স্বপ্ন সাগরের উত্তাল ঢেউ-এ ভেসে যায়, আর কিছু স্বপ্ন বুকের ঘহিনে কেদে বেড়ায়, তবুও কি স্বপ্ন দেখা থেমে যায় ? " সবার স্বপ্নগুলো সত্যি হোক এই শুভো প্রার্থনা!

Follow me