দাম্পত্য হয়ে উঠুক বন্ধুত্বপূর্ণ ৫টি উপায়ে


আমাদের দেশে বেশিরভাগ দাম্পত্য সম্পর্কই শুধু মাত্র শারীরিক ও সাংসারিক প্রয়োজন ভিত্তিক। স্বামী-স্ত্রীর একে অপরের সাথে মানসিক যোগাযোগ নেই বললেই চলে। শুধু মাত্র বিয়ে করা প্রয়োজন তাই যেন বিয়ে করে থাকেন তাঁরা। তার উপরে পুরুষতান্ত্রিক এই সমাজে নারীকে স্ত্রীর বদলে সবচেয়ে ভালো বন্ধু হিসেবে ভাবাটা যেন এক অসম্ভব ব্যাপার। তাই বেশিরভাগ দাম্পত্য সম্পর্কেই অশান্তি, ভালোবাসার অভাব, মানসিক যোগাযোগের অভাব দেখা যায়। নানান ধরণের এই দাম্পত্য সমস্যাগুলোর এক মাত্র সমাধান হলো আপনার সঙ্গীটির সাথে বন্ধুত্বের সম্পর্ক গড়ে তোলা। এতে একে অপরকে বুঝবে এবং নিজেদের মধ্যে ভালোবাসার বন্ধন আরো দৃঢ় হবে। আসুন দেখে নেয়া যাক দাম্পত্য সম্পর্ককে বন্ধুত্বময় করে তোলার ৫টি উপায়।

এক সাথে আনন্দ করুন

সংসারকে এক ঘেয়ে করে ফেলবেন না। দুজন মিলে এক সাথে আনন্দ করুন। দুজনেই দুজনের বন্ধুদেরকে আপন করে নিন। মাঝে মাঝে বন্ধুদের দাওয়াত দিয়ে পার্টির আয়োজন করে নিতে পারেন। দুজনে মিলে খেলা যায় এমন সব খেলা খেলুন সম্ভব হলে। এক সঙ্গে কম্পিউটার গেমও খেলতে পারেন। আর সুযোগ পেলেই ঘুরে আসুন দূরের কোনো সুন্দর যায়গা থেকে। তাহলে আপনাদের মধ্যে মানসিক দূরত্ব কমবে এবং বন্ধুত্বের সম্পর্ক তৈরী হবে।

সঙ্গীর পছন্দের বিষয়ে উৎসাহ দেখান

আপনার সঙ্গীটিকে যদি কোনো বিষয় নিয়ে অনেক উচ্ছাসিত হতে দেখেন তাহলে আপনিও সেই বিষয়টি নিয়ে উৎসাহ দেখান। হতে পারে মন থেকে আপনার উৎসাহ নেই অথবা আপনি বিরক্ত হচ্ছেন। কিন্তু সেটা প্রকাশ করলে আপনয়ার সঙ্গীটি মনক্ষুন্ন হবেন। তাই সঙ্গী যেসব বিষয় পছন্দ করে সেগুলোতে আপনিও আগ্রহ দেখান। এতে দুজনের মধ্যে সুন্দর বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক স্থাপিত হবে।

সঙ্গীকে জানুন

আপনার বন্ধুর পছন্দ অপছন্দ তো সবই জানেন আপনি। অথচ হয়তো সংসার করছেন অনেক দিন হয়েছে। কিন্তু সঙ্গীর পছন্দ, অপছন্দ, ছোট বেলার মজার গল্প গুলো জানেন না এখনো। সঙ্গীর খুটিনাটি বিষয়গুলো না জানলে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক করা সম্ভব নয়। তাই আপনার সঙ্গীকে তার পছন্দ-অপছন্দ জিজ্ঞেস করুন। তার মজার গল্পগুলো তার মুখ থেকেই শুনে নেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করুন। এতে সে আপনাকে বন্ধু ভাববে এবং আগ্রহ নিয়ে মন খুলে কথা বলবে।


প্রশংসা করুন

সব মানুষই প্রশংসা শুনতে পছন্দ করে। আর সে যদি হয় আপনার ভালোবাসার সঙ্গীটি, তাহলে মন খুলে প্রশংসা করুন। কারণ প্রশংসা করলে আত্মবিশ্বাস বাড়বে এবং পরবর্তিতে সে আপনার প্রতি আরো যত্নশীল হয়ে উঠবে।

ক্ষমা করে দিন

বন্ধুত্ব তো একদিনে হয় না। তাই সময় নিয়ে চেষ্টা চালিয়ে যান। আপনার সঙ্গী হয়তো প্রথমে মন থেকে আপনাকে বন্ধু ভাবতে পারবে না। কিন্তু কিছুদিন চেষ্টা করে গেলে এক সময় আপনাদের মধ্যে বন্ধুও গড়ে উঠবেই। তাই সঙ্গী যদি প্রথম প্রথম কোনো সমস্যা সৃষ্টি করে তাহলে তাকে ক্ষমা করে দিন। বন্ধুত্ব করতে চাইলে ভুলেও খারাপ ব্যবহার বা ঝগড়াঝাটি করা চলবে না।

0 comments:

Post a Comment

" কিছু স্বপ্ন আকাশের দূর নীলিমাক ছুয়ে যায়, কিছু স্বপ্ন অজানা দূরদিগন্তে হারায়, কিছু স্বপ্ন সাগরের উত্তাল ঢেউ-এ ভেসে যায়, আর কিছু স্বপ্ন বুকের ঘহিনে কেদে বেড়ায়, তবুও কি স্বপ্ন দেখা থেমে যায় ? " সবার স্বপ্নগুলো সত্যি হোক এই শুভো প্রার্থনা!

Follow me