মাকে বেঁধে ওই তরুণীকে ধর্ষণ, ৪ যুবকের যাবজ্জীবন

নেত্রকোনা : নেত্রকোনায় এক তরুণীকে অপহরণ ও ধর্ষণের দায়ে চার আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। নেত্রকোনার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ এর বিচারক অতিরিক্ত দায়রা জজ মো. আব্দুল হামিদ সোমবার এই রায় ঘোষণা করেন। আসামিদের প্রত্যেককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের পাশাপাশি ১ লাখ টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরো ৩ বছর সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন দিনি। চার আসামি হলেন- রায়েত আলী, সুলতান মিয়া, জহর আলী ও আজিজুল। তাদের বাড়ি দুর্গাপুর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে। নেত্রকোনা আদালতের পিপি জি এম খান পাঠান বিমল জানান, ২০০১ সালের ১৩ অক্টোবর রাতে দুর্গাপুর উপজেলার চণ্ডিগড় গ্রামের এক বাড়িতে ঢুকে মাকে বেঁধে ওই তরুণীকে অপহরণ করে পাঁচ যুবক। পরে ধর্ষণের পর বাড়ির কাছেই এক স্থানে মেয়েটিকে ফেলে রেখে যায় অপহরণকারীরা। পরদিন তরুণীর বাবা বাদি হয়ে পাঁচ যুবককে আসামি করে থানায় মামলা করেন। তদন্ত শেষে পুলিশ ২০০২ সালের ১৭ অক্টোবর পাঁচ আসামির বিরুদ্ধে আদলতে অভিযোগপত্র দেয়। বিচার চলাকালে এক আসামির মৃত্যু হওয়ায় তাকে মামলা থেকে অব্যহতি দেওয়া হয়। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বাকি চার আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিল আদালত।

0 comments:

Post a Comment

" কিছু স্বপ্ন আকাশের দূর নীলিমাক ছুয়ে যায়, কিছু স্বপ্ন অজানা দূরদিগন্তে হারায়, কিছু স্বপ্ন সাগরের উত্তাল ঢেউ-এ ভেসে যায়, আর কিছু স্বপ্ন বুকের ঘহিনে কেদে বেড়ায়, তবুও কি স্বপ্ন দেখা থেমে যায় ? " সবার স্বপ্নগুলো সত্যি হোক এই শুভো প্রার্থনা!

Follow me