কাছের মানুষ যখন দূরে থাকেন

ভালোবাসার সম্পর্ক হল সব থেকে পবিত্র সম্পর্কগুলোর মধ্যে একটি। পারস্পারিক নির্ভরতা, বিশ্বাস, বোঝাপড়া ও অনেকখানি মমতার উপরে ভিত্তি করেই গড়ে উঠে একটি সুন্দর সম্পর্ক। একে অন্যের সাথে সময় কাটিয়ে, একে অন্যকে জেনে-বুঝে সম্পর্কও এ গিয়ে নিলে সেই সম্পর্কের ভিত্তি দিন দিন হয়ে উঠে আরো মজবুত।
কিন্তু জীবিকার তাগিদে হোক বা অন্য কোন কারনেই হোক ভালোবাসার মানুষটি থেকে দূরে থাকতে হয় অনেককেই। তাই বলে কি তাদের সম্পর্ক অন্য যুগলদের সম্পর্কের থেকে আলাদা হয়ে পড়ে? উত্তর হবে, না। মনের সাথে যে সম্পর্কের যোগ তা এত ঠুনকো হয়না। কিন্তু এমন সম্পর্ক রক্ষা করতে হলে অন্য সবার থেকে একটু বেশি সময় ও শক্তি দিতে হবে অবশ্যই। দূরে থেকেও কিভাবে সুন্দর করে মানিয়ে চলতে পারেন তা নিয়েই আমাদের এই আয়োজন।
  • প্রথমেই মনে রাখতে হবে যেহেতু এমন সম্পর্কের ক্ষেত্রে প্রতিদিন দেখা করা সম্ভব হয়না, তাই ভালবাসার মানুষের সাথে ফোনের মাধ্যমে নিয়মিত যোগাযোগ রাখতে হবে। তবে শুধু ফোনেই নয় যোগাযোগ রাখুন স্কাইপের সাহায্যে ভিডিও চ্যাট করেও। এতে আপন মানুষটি কাছে আছে বলেই অনুভুত হবে।
  • দূরত্ব থাকা সত্ত্বেও এক সাথে উপভোগ করুন আপনাদের অবসর সময়। কিভাবে? দুজনের সময় মিলিয়ে এক সাথে কোন একটি সিনেমা, বা টিভিতে কোন অনুষ্ঠান দেখতে পারেন। কি দেখবেন তা আগে থেকে ঠিক করে রাখুন। অথবা দুজন এক সাথে খেতে বসুন নিজ নিজ জায়গা থেকে। সিনেমা বা টিভির অনুষ্ঠান দেখার মাঝে একে অন্যকে ফোন করে যোগাযোগ করতে পারেন বা অনলাইনে কথা বলতে পারেন। এভাবে এক সাথে সুন্দর করে কিছু সময় কেটে যাবে আপনজনের সান্নিধ্যে। দূরত্বের কথা মাথায় আসবেনা।
  • সব সময় শুধু ফোনে যোগাযোগ করে কথা বলাটা যথেষ্ট মনে হয়না। সেক্ষেত্রে যে সময়টা কথা বলে পার করার কথা থাকবে, সেই সময়ে কথা বলতে বলতেই দুজনে মিলে কিছু মজাদার করতে পারেন, বা কোন কাজ করতে পারেন। যেমন দুইজনে এক সাথে মিলে কোন রান্না করতে পারেন, বা একে অন্যকে রান্নায় সাহায্য করতে পারেন। ভিডিও চ্যাটের মাধ্যমে মজাদার কোন বোর্ড গেমও খেলতে পারেন। এভাবে সময় কাটালে মনেই থাকবেনা যে উনি আপনার থেকে অনেক দূরে অবস্থান করছেন।
  • মনে রাখবেন যেহেতু একে অন্যের থেকে দূরে থাকছেন, তাই প্রতিদিন যোগাযোগ করুন। সম্ভব হলে একবারের বেশি ফোন করুন যেন অনেক দূরে থাকেন মনে করে কষ্ট না হয়।
  • দূরে যেহেতু থাকতেই হবে তাই দুজনের একটি সাধারন আগ্রহের বিষয় খুজে বের করুন। সিনেমা দেখতে পছন্দ করলে সেটা নিয়ে কথা বলুন, গল্পের বই পড়তে পছন্দ করলে তা নিয়েও কথা বলতে পারেন। এতে কথা বলতে গিয়ে একঘেয়েমির শিকার হতে হবেন না।
  • দূরে থাকলে প্রায় একে অপরকে নিজের আশেপাশে অনুভব করতে ইচ্ছা করতে পারে। কিন্তু ইচ্ছা থাকলেও কি সব সময় সঙ্গীর কাছে ছুটে যাওয়া সম্ভব হয় না। তখন বিরহ ব্যথা বেড়ে যায় অনেকগুন। এমন সময় যদি ভালোবাসার মানুষের স্মৃতি হিসেবে কিছু থাকে নিজের কাছে তাতে অনেক উপকার পাওয়া যায়। তাই সঙ্গীর কাছে আপনার স্মৃতিচিহ্ন হিসেবে আপনার প্রিয় কিছু দিয়ে রাখুন যেন তা আপনার অভাব কিছুটা হলেও তা লাঘব করতে সাহায্য করতে পারে।
  • এছাড়াও প্রিয় মানুষকে নিজের কাছে অনুভব করার ভাল কিন্তু সহজ উপায় হতে পারে মোবাইলে বা ঘড়িতে টাইমার সেট করে রাখা। আপনার প্রিয়জনের ঘুম থেকে উঠার সময় বা অফিস ছুটির সময়টা আপনার সময়ের সাথে মিলিয়ে আপনার ঘড়ি বা মোবাইলে টাইমার সেট করে রাখতে পারেন। যখন তার অফিস ছুটির টাইম অনুসারে বা ঘুম থেকে উঠার সময় অনুযায়ী টাইমার বেজে উঠবে তখন তার কথা মনে পড়বে। হাতে সময় থাকলে চট দু'মিনিটের জন্য একটা ফোন দিয়ে তাকে উইশ করুন বা তার দিন কেমন গেল জেনে নিন। এমনটা করলে তার দিনটাও ভাল যাবে আর আপনারটাও ভাল যাবে।
  • তবে সব সময় যে তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হবে তাও কিন্তু নয়। হয়ত আপনি যে সময় নিজের জন্য পাচ্ছেন সেই সময় সে কাজে চলে গেছে বা ঘুমিয়ে পড়েছে। এমন সময় তার সাথে যোগাযোগ না করে বরং নিজের পেছনে ব্যয় করুন। নতুন কিছু শিখুন, নতুন কিছু করুন। নিজেকে ব্যাস্ত রাখুন। এতে আপনার সময় কেটে যাবে সেই সাথে এরপরে যখন তার সাথে সামনাসামনি দেখা হবে তাকে আপনার নতুন শেখা জিনিশগুলো করে চমকে দিতে পারবেন। তিনিও খুশি হবেন আশা করি।
  • যখন দূরে থাকবেন তখন মন খারাপ না করে বরং ভবিষ্যতের পরিকল্পনা করুন। এক সাথে হলে কি করবেন কোথায় যাবেন এসব পরিকল্পনা করুন। দেখবেন মন খারাপ ভাব কমে গেছে।
  • যদি সময়, সুযোগ ও খরচে কুলায় তবে অবশ্যই তার সাথে দেখা করতে যান। না পারলেও দুজনে মিলে একটি সময় নির্ধারণ করে রাখুন যে সময়ে আপনি অবশ্যই তার সাথে দেখা করতে যাবেন বা তিনি আসবেন আপনার সাথে দেখা করতে। দেশের মধ্যেই অন্য শহরে থাকলে মাসে এক থেকে দুই বার দেখা করতে যাওয়া আসা করতেই পারেন।
  • অনেকদিন পরে যখনই এক সাথে হবার সুযোগ পাবেন তখন ঘুরতে যান বা বাসায় থাকলে এক সাথে সময় কাটান বেশি করে। আপনার সঙ্গীর কাছে যাবার আগে বা আপনার সঙ্গী আপনার কাছে আসার আগে আগে সব দরকারি কাজ গুছিয়ে রাখুন। আপনি কর্মজীবী হলে অফিস থেকে ছুটি নিয়ে রাখতে পারেন। মোট কথা কাছাকাছি থাকার সময়টুকুর সর্বচ্চ ব্যাবহার করুন।
  • যদি আপনার ভালবাসার মানুষ কখনো কোন বিপদে পড়ে বা অসুস্থ হয়ে পড়ে তখন অবশ্যই তার পাশে ছুটে যাবেন। একদম নিরুপায় হলে সেক্ষেত্রে অন্যান্য সময়ের থেকে তার বেশি খোজ খবর রাখুন। তার আশেপাশে উপস্থিত মানুষকে তার যত্ন নিতে বলুন। তাকে অভয় দিন, তাকে বলুন আপনি যখন তার পাশে থাকবেন তখন দুজনে মিলে কি কি করবেন। মানসিক শক্তি জোগান তার মনে।

0 comments:

Post a Comment

" কিছু স্বপ্ন আকাশের দূর নীলিমাক ছুয়ে যায়, কিছু স্বপ্ন অজানা দূরদিগন্তে হারায়, কিছু স্বপ্ন সাগরের উত্তাল ঢেউ-এ ভেসে যায়, আর কিছু স্বপ্ন বুকের ঘহিনে কেদে বেড়ায়, তবুও কি স্বপ্ন দেখা থেমে যায় ? " সবার স্বপ্নগুলো সত্যি হোক এই শুভো প্রার্থনা!

Follow me