মানব দেহের যৌন স্পর্শকাতর অঙ্গ

 

লন্ডন : মানব দেহ একটি রহস্যময় কারখানা। একটি গবেষণায় দেখা গেছে মানুষের দেহের অদ্ভুত কিছু অনুভূতি। যেমন যৌন মিলনের সময় কিছু কিছু মানুষ নারীর দেহের বিভিন্ন অঙ্গে যৌন উত্তেজনা সৃষ্টি করে। কিন্তু একই

বিষয় ঘটে পুরুষের ক্ষেত্রেও। আমরা মনে করি পুরুষের দেহের যৌন অনুভূতি সম্পন্ন অঙ্গ শুধু একটিই। সম্প্রতি বেঙ্গর ইউনিভার্সিটির নিউরো সায়েন্টিস্টদের এক গবেষণায় উঠে আসে মানব দেহের আজব সব অনুভূতির

তথ্য।

নিউরো সায়েন্টিস্টদের গবেষণা্য় দেখা যায়, পায়ের পাতা হচ্ছে শরীরের ৪১টি অঙ্গের মধ্যে সবচেয়ে কম যৌন অনুভূতি সম্পন্ন অঙ্গ। এর ফলে এর আগের নিউরো সায়েন্টিফিক জার্নাল কর্টেক্স ও অবজারভারসহ

কয়েকটি সংবাদপত্রের প্রকাশিত একটি গবেষনাকে ভুল প্রমাণিত করেছে। যেখানে পায়ের পাতাকে যৌন অনুভূতিতে যৌনাঙ্গে সাড়া দেয়ার একটি ধারণাকে মিথ্যা প্রমাণিত করে।

আগে ধারণা্ করা হতো পুরুষের যৌন উত্তেজক অঙ্গ শুধু একটাই আর তাহলো তার পুরুষাঙ্গ। কিন্তু গবেষণায় দেখা যায় নারী দেহের মত পুরুষের দেহের বিভিন্ন অঙ্গ যৌন উত্তেজনায় বিভিন্নভাবে সাড়া দেয়। বেঙ্গর ইউনিভার্সিটির স্কুল অব সাইকোলজির প্রফেসর অলিভার টার্নবুল অবজার্ভারকে বলেন, “অনেক মানুষ ধারনা করতো যে, নারীর সারা দেহে যৌন উত্তেজনা বিরাজ করে আর পুরুষের যৌন উত্তেজক অঙ্গ কেবল একটি। কিন্তু বিষয়টি একেবারেই তেমন নয়। এটা পুরুষের ক্ষেত্রেও নারী দেহের মত যৌন উত্তেজনায় অঙ্গগুলো সমান সাড়া দেয়। শুধুমাত্র নারীর যৌনতাকে অতিরঞ্জিত করার জন্য একথা বলা হয়ে থাকে।“

বিজ্ঞানীদের মতে, যুক্তরাজ্য ও দক্ষিণ আফ্রিকার ৮০০ লোকের মধ্যে একটি পর্যবেক্ষণে দেখা যায় ধর্ম, বর্ণ, গোত্র ও যৌন কামনার পারিপার্শ্বিকতায় এই ফলাফল একই রকম। দেহের সবচেয়ে যৌন উত্তেজক অঙ্গ অবশ্যই যৌনাঙ্গ এরপর ঠোট, কান, উরুর নিচের অংশ, এবং ঘাড়ের অংশ।

বিজ্ঞানীরা বলেন, এই অনুভূতি মানুষের ভিতরে জন্মগত। এটা কোন সংস্কৃতি বা অভিজ্ঞতার উপর ভিত্তি করে নয়। যা এর আগে বিজ্ঞানীরা ধারণা করেছিলেন যে, যৌন অনুভূতি নিয়ন্ত্রণ করে মষ্তিষ্ক, যা স্পর্শের মাধ্যমে শরীরে অনুভূতি জাগায়।

তিনি আরো বলেন, আমরা খুঁজে বের করতে চেষ্টা করছি যে, মানুষের ঘাড়ের অংশটা যৌন উত্তেজনায় ব্যাপক সাড়া দেয় কিন্তু একই সেন্সর কপালে থাকা সত্ত্বেও কপাল যৌন অনুভূতিতে কেন সমান সাড়া দেয় না। তাই মষ্তিষ্ক যে যৌন অনুভূতিতে সাড়া দেয় এটা বলা মুশকিল।

না্রী পুরুষের যৌন আবেদনে সবচেয়ে স্পর্শ কাতর অঙ্গগুলো হলো:

পুরুষের দেহের মুখ ও ঠোট ১০ এর মধ্যে ৭

উরুর নিম্নাংশ ১০ এর মধ্যে ৫.৮

গলা বা ঘাড়ের অংশ ৫.৬

স্তনের বোটা ১০ মধ্যে ৪.৮

নীতম্ব সবচেয়ে উত্তেজক অংশ ১০ মধ্যে ২.৮ এবং পুরুষের দেহের সবচেয়ে কম উত্তেজক অঙ্গ কনুই।

নারীর দেহের সবচেয়ে উত্তেজক অঙ্গগুলো হলো:

নারীর দেহের মুখ ও ঠোট হচ্ছে যৌন উত্তেজনায় সবচেয়ে উত্তেজক অঙ্গ রেটিংয়ে ১০ এর মধ্যে ৭.৯

এরপর গলা ও ঘাড় ১০ এর মধ্যে ৭.৫

স্তন ও স্তনের বোটা তৃতীয় অবস্থানে ৭.৩

নীতম্ব হচ্ছে ১০ এর মধ্যে ৪.৫

কোমর ৩.৫ ও পায়ের পাতা ১০ এর মধ্যে এক।

0 comments:

Post a Comment

" কিছু স্বপ্ন আকাশের দূর নীলিমাক ছুয়ে যায়, কিছু স্বপ্ন অজানা দূরদিগন্তে হারায়, কিছু স্বপ্ন সাগরের উত্তাল ঢেউ-এ ভেসে যায়, আর কিছু স্বপ্ন বুকের ঘহিনে কেদে বেড়ায়, তবুও কি স্বপ্ন দেখা থেমে যায় ? " সবার স্বপ্নগুলো সত্যি হোক এই শুভো প্রার্থনা!

Follow me